হবিগঞ্জে সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভূল চিকিৎসায় প্রসূতি মৃত্যুর অভিযোগ | | সেরা নিউজ ২৪ ডটকম | SeraNews24.Com | সর্বদা সত্যের সন্ধানে
বিজ্ঞপ্তিঃ

*** দেশের জনপ্রিয় জাতীয় অনলাইন দৈনিক “সেরা নিউজ ২৪ ডটকম” এর সংবাদ সংগ্রহ করার জন্য জেলা-উপজেলা পর্যায়ে কর্মঠ, সৎ, সাহসী পুরুষ ও মহিলা সংবাদদাতা/প্রতিনিধি/বিশেষ প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। ***

সংবাদ শিরোনাম :
হবিগঞ্জে সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভূল চিকিৎসায় প্রসূতি মৃত্যুর অভিযোগ

হবিগঞ্জে সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভূল চিকিৎসায় প্রসূতি মৃত্যুর অভিযোগ

এস.এম আমীর হামজা (হবিগঞ্জ):

হবিগঞ্জ শহরের টাউন হল সড়কের একটি ক্লিনিকে ভুল চিকিৎসায় রিনা আক্তার রিয়া (৩০) নামের এক প্রসুতি মহিলার মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এতে তার ৩ শিশু সন্তানের ভবিষ্যত অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।
এ নিয়ে ওই হাসপাতালের কর্তৃপক্ষের সাথে রোগীর স্বজনদের বাকবিতন্ডার ঘটনা ঘটেছে।
রিনা আক্তার চুনারুঘাট উপজেলার উবাহাটা গ্রামের জসিম উদ্দিনের স্ত্রী।
হবিগঞ্জ সদর উপজেলার কুতুবের চক গ্রামের বাসিন্দা ওই গৃহবধূর ভাই গিয়াস উদ্দিন জানান, গত ১৫ এপ্রিল রিনা আক্তারের প্রসব ব্যাথা উঠলে তাকে শায়েস্তাগঞ্জে ডাক্তার শামীমা আক্তারের কাছে নিয়ে যাওয়া হয়। তিনি পরীক্ষা নিরীক্ষার পর রোগীর অবস্থা খারাপ দেখে তাকে হবিগঞ্জ সেন্ট্রাল হাসপাতালে প্রেরণ করে। সেখানে রিয়াকে নিয়ে এসে দ্বিতীয় তলার ৪ নম্বর কেবিনে ভর্তি করা হয়। ওইদিনই দুপুরের দিকে রিয়ার সিজার করা হয়। সিজারের পর রিয়া একটি পুত্র সন্তান জন্ম দেন।
এদিকে সিজারের পর অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ শুরু হয় রিয়ার। তখন এবি পজিটিভের ৩ ব্যাগ রক্ত সরবরাহ করা হয় তাকে। কিন্তু এতেও তার অবস্থার উন্নতি না হলে ওইদিন সন্ধ্যায় তাকে সিলেট ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।১৬ এপ্রিল ভোরে সিলেট ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।তিনি বলেন, ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক তাকে জানান, সিজারের সময় জরায়ু কেটে ফেলায় অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হয়েছে। ফলে রক্তশূন্যতায় মারা গেছেন রিয়া। এদিকে রিয়ার ৩টি শিশু সন্তান মাকে হারিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছে। গিয়াস উদ্দিন এ জন্য সংশ্লিষ্ট চিকিৎসককে দায়ী করেন। ১৬ এপ্রিল বিকালে রিয়ার দাফন সম্পন্ন হয়। হবিগঞ্জ শহরে এ খবর ছড়িয়ে পড়লে সেন্ট্রাল হসপিটাল ও রিয়ার পরিবারের সাথে যোগাযোগ করতে শুরু করেন সাংবাদিকরা।খবর নিয়ে জানা যায়, হবিগঞ্জ শহরে বেশ কয়েকটি হসপিটাল ও ক্লিনিকের বৈধ কাগজপত্র নেই এবং অভিজ্ঞ কোন চিকিৎসক নেই। তাদের নিয়োজিত কিছু দালাল রয়েছে তাদের মাধ্যমে সদর হাসপাতালে আসা রোগীদের নিয়ে আসা হয় ওই সব ক্লিনিকে। আর এসব ক্লিনিকের ভুল চিকিৎসায় প্রায়ই মারা যাচ্ছে রোগী। সম্প্রতি চাঁদের হাসি হাসপাতালেও এরকম ঘটনা ঘটেছে।এ বিষয়ে সেন্ট্রাল হসপিটালের ম্যানেজার অসীম জানান, রোগীকে আশংকাজনক অবস্থায় নিয়ে আসা হয়। তার বাচ্চার ওজন ৪ কেজি ৪শ গ্রাম। চিকিৎসক যথাসাধ্য চেষ্টা করেছেন। পরে তাকে সিলেট প্রেরণ করা হয়।
এ ব্যাপারে ডাক্তার শামীমা আক্তার জানান, আমি রোগীকে সাধ্যমত চিকিৎসা করেছি। কিন্তু রোগীর অবস্থা সংকটাপন্ন ছিল। সিলেট রেফার্ড করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়।

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার মতামত ‍লিখুন

মন্তব্য

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন...

সংবাদ খুজুন

ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিনঃ

 
সেরা নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম – SeraNews24.Com ☑️
পাবলিক গোষ্ঠী · 23,009 জন সদস্য

গোষ্ঠীতে যোগ দিন

প্রতিমুহূর্তের সংবাদ পেতে Like দিন অফিশিয়াল পেইজ এ।
নিউজ পোর্টাল: www.SeraNews24.Com
ফেসবুক গ্রুপ: http://bit.do/SN24FBGroup
ইউটিউব চ্যানেল: http://bi…
 

 About Us     Contact     Privacy & Policy     DMCA     Sitemap

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | সেরা নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম ২০১৮

Design & Developed By Digital Computer Center
error: Content is protected !!