রক্তে গাড়ির আসন ভিজবে বলে… | | সেরা নিউজ ২৪ ডটকম | SeraNews24.Com | সর্বদা সত্যের সন্ধানে
বিজ্ঞপ্তিঃ

দেশের জনপ্রিয় জাতীয় অনলাইন দৈনিক “সেরা নিউজ ২৪ ডটকম” এর সংবাদ সংগ্রহ করার জন্য জেলা-উপজেলা পর্যায়ে কর্মঠ, সৎ, সাহসী পুরুষ ও মহিলা সংবাদদাতা/প্রতিনিধি/বিশেষ প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে।

সংবাদ শিরোনাম :
কন্যাসন্তানের বাবা হচ্ছেন সাকিব, ছেলে হলো মাহমুদউল্লাহর হিজড়ারা মানুষ, তাঁদেরও ক্ষুধা আছে ভিডিও কনফারেন্সে লক্ষ্মীপুরের মানুষকে লক্ষ্মী হয়ে ভালো থাকার জন্য বলেন প্রধানমন্ত্রী লালমনিরহাট জেলা পাটগ্রাম থানায় নিজ বেতনের টাকা দিয়ে দুস্থদের খাদ্যসামগ্রী দিলেন ইউএনও মশিউর রহমান “টঙ্গীবাড়িতে আ’লীগ উপদেষ্টার খাদ্য সামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণ” করোনায় আক্রান্ত ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন আইসিইউতে বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ হাসপাতালে ভর্তি না নেওয়ায় গাড়িতে সন্তান প্রসব ফেসবুকের ‘করোনা ম্যাপ’ যে কাজে লাগবে করোনায় আক্রান্ত সেই বার্সা তারকা এখন আশঙ্কামুক্ত
রক্তে গাড়ির আসন ভিজবে বলে…

রক্তে গাড়ির আসন ভিজবে বলে…

গাড়ি রক্তে ভিজে যাবে বলে দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত দুই কিশোরকে সড়ক থেকে তুলল না পুলিশ। আশপাশের লোকজনের আবেদনেও টহলরত পুলিশ সাড়া দেয়নি। এমনকি দুর্ঘটনাস্থলের সামনে চলাচলকারী কোনো গাড়ি সাহায্য করতে রাজি হয়নি। শেষ পর্যন্ত সড়কেই প্রাণ গেল দুই কিশোরের। গত বৃহস্পতিবার রাতে ভারতের উত্তর প্রদেশের সাহারানপুরে ঘটেছে এ ঘটনা।
ঘটনাস্থলে থাকা এক ব্যক্তি পুরো ঘটনা ভিডিও করেন। পরে এ ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়লে পুলিশের ভূমিকা নিয়ে নিন্দার ঝড় ওঠে।
এনডিটিভির খবরে বলা হয়, রাজ্যজুড়ে যেকোনো ঘটনায় পুলিশের তড়িৎ ভূমিকা রাখার উদ্দেশ্যে উত্তর প্রদেশ সরকারের ‘ডায়াল ১০০’ প্রকল্প রয়েছে। পুলিশকে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য এই প্রকল্পে সরকার ২০১৬ সালে আরও গাড়িও দিয়েছে। অথচ ওই দুই কিশোরের দুর্ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত হলেও কোনো সাহায্য করেনি। মোটরসাইকেল আরোহী নিহত দুই কিশোরের পরিচয় জানা গেছে। তারা হচ্ছেন অর্পিত খুরানা ও সানি। তাদের দুজনেরই বয়স ১৭।

তিন মিনিটের ভিডিওতে দেখা গেছে, রক্তাক্ত দুই কিশোর সড়কে পড়ে রয়েছে। কাছেই তাদের মোটরসাইকেলটি পড়ে রয়েছে। কয়েকজন লোক তাদের তোলার চেষ্টা করছেন। ‘ডায়াল ১০০’ প্রকল্পের আওতায় টহলরত তিনজন পুলিশ সদস্য গাড়ি নিয়ে ঘটনাস্থলে এসেছেন। তবে ওই দুই কিশোরকে সড়ক থেকে তোলেননি। ওই তিন পুলিশ সদস্য চাননি তাঁদের গাড়ি রক্তে ভিজে যাক।

‘ওরা তো কারও না কারও সন্তান’—পুলিশের প্রতি আকুতি জানাতে শোনা গেল এক লোককে। ‘এখানে কারও গাড়ি নেই। ওদের তুলুন।’—ওই ব্যক্তি বারবার আকুতি জানিয়ে যাচ্ছিলেন। পরে পুলিশের উপস্থিতিতেই লোকজন সেখানে চলাচলকারী কয়েকটি গাড়িকে থামানোর চেষ্টা করে। কিন্তু কোনো গাড়িই সাহায্যের জন্য থামেনি।

ভিডিওতে আরও দেখা গেছে, আরেকজন লোক পুলিশকে বলছেন, ‘আপনাদের গাড়ি তো ধোয়াও যাবে কিন্তু…’। এরপরও পুলিশের কোনো ভাবান্তর দেখা যায়নি। তিন পুলিশ সদস্যের একজন ওই সময় বলে উঠলেন, ‘গাড়ি ধোয়া হলে সারা রাত আমরা বসব কোথায়।’

একসময় স্থানীয় পুলিশ স্টেশন থেকে আরেকটি গাড়ি আসে। ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গেছে। হাসপাতালে নেওয়ার পর দুই কিশোরকে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এ ব্যাপারে সাহারানপুর পুলিশপ্রধান প্রবাল প্রতাপ সিংহ বলেন, দুর্ঘটনাস্থলে যাওয়া ওই তিন পুলিশ সদস্যের কাণ্ড সম্পর্কে শুনেছি। তাঁরা হাসপাতালে নিতে সহায়তা করতে চাননি বলে অভিযোগ উঠছে। ভিডিওটি দেখে বোঝা যাচ্ছে যে অভিযোগ সত্য। তিনি জানান, ওই তিন পুলিশ সদস্যকে বরখাস্ত করা হয়েছে। এ বিষয়ে তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার মতামত ‍লিখুন

মন্তব্য

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন...

সংবাদ খুজুন

ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিনঃ

 
সেরা নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম – SeraNews24.Com ☑️
পাবলিক গোষ্ঠী · 23,009 জন সদস্য

গোষ্ঠীতে যোগ দিন

প্রতিমুহূর্তের সংবাদ পেতে Like দিন অফিশিয়াল পেইজ এ।
নিউজ পোর্টাল: www.SeraNews24.Com
ফেসবুক গ্রুপ: http://bit.do/SN24FBGroup
ইউটিউব চ্যানেল: http://bi…
 

 About Us     Contact     Privacy & Policy     DMCA     Sitemap

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | সেরা নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম ২০১৮

Design & Developed By Digital Computer Center
error: Content is protected !!