রক্তে গাড়ির আসন ভিজবে বলে… – সেরা নিউজ ২৪ ডটকম | SeraNews24.Com | সর্বদা সত্যের সন্ধানে
সংবাদ শিরোনাম :
মাওনা প্রিমিয়ার লীগে ভিক্টরিয়া একাদশকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন ভাইকিংস একাদশ ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটিতে আধুনিক মঞ্চ নাটক প্রদর্শনী তিতুমীরে ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিকে ঘিরে উৎসবমুখর পরিবেশে জীবনবৃত্তান্ত সংগ্রহ চকবাজার অগ্নিকান্ডে রাষ্ট্রীয়ভাবে শোক পালিত কবি সাজেদুল হকের ” মাছরাঙার শহরে, উড়ে যাওয়া পাখির দূরে যাওয়া শূন্যতা “ শ্রীপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আলহাজ্ব আব্দুল জলিলকে নৌকার প্রার্থী হিসেবে চায় শ্রীপুরবাসী কুষ্টিয়া তে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১ কুমারখালী তে বই উৎসব ২০১৯ অনুষ্ঠিত। কুষ্টিয়া -৪ আসনের আওয়ামীলীগের প্রার্থী সেলিম আলতাফ জর্জ বিশাল ব্যবধানে বিজয়ী। নৌকায় ভোট চাইলেন তিতুমীর কলেজ ছাত্রলীগ নেতা হাসানুর রহমান শাওন
রক্তে গাড়ির আসন ভিজবে বলে…

রক্তে গাড়ির আসন ভিজবে বলে…

গাড়ি রক্তে ভিজে যাবে বলে দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত দুই কিশোরকে সড়ক থেকে তুলল না পুলিশ। আশপাশের লোকজনের আবেদনেও টহলরত পুলিশ সাড়া দেয়নি। এমনকি দুর্ঘটনাস্থলের সামনে চলাচলকারী কোনো গাড়ি সাহায্য করতে রাজি হয়নি। শেষ পর্যন্ত সড়কেই প্রাণ গেল দুই কিশোরের। গত বৃহস্পতিবার রাতে ভারতের উত্তর প্রদেশের সাহারানপুরে ঘটেছে এ ঘটনা।
ঘটনাস্থলে থাকা এক ব্যক্তি পুরো ঘটনা ভিডিও করেন। পরে এ ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়লে পুলিশের ভূমিকা নিয়ে নিন্দার ঝড় ওঠে।
এনডিটিভির খবরে বলা হয়, রাজ্যজুড়ে যেকোনো ঘটনায় পুলিশের তড়িৎ ভূমিকা রাখার উদ্দেশ্যে উত্তর প্রদেশ সরকারের ‘ডায়াল ১০০’ প্রকল্প রয়েছে। পুলিশকে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য এই প্রকল্পে সরকার ২০১৬ সালে আরও গাড়িও দিয়েছে। অথচ ওই দুই কিশোরের দুর্ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত হলেও কোনো সাহায্য করেনি। মোটরসাইকেল আরোহী নিহত দুই কিশোরের পরিচয় জানা গেছে। তারা হচ্ছেন অর্পিত খুরানা ও সানি। তাদের দুজনেরই বয়স ১৭।

তিন মিনিটের ভিডিওতে দেখা গেছে, রক্তাক্ত দুই কিশোর সড়কে পড়ে রয়েছে। কাছেই তাদের মোটরসাইকেলটি পড়ে রয়েছে। কয়েকজন লোক তাদের তোলার চেষ্টা করছেন। ‘ডায়াল ১০০’ প্রকল্পের আওতায় টহলরত তিনজন পুলিশ সদস্য গাড়ি নিয়ে ঘটনাস্থলে এসেছেন। তবে ওই দুই কিশোরকে সড়ক থেকে তোলেননি। ওই তিন পুলিশ সদস্য চাননি তাঁদের গাড়ি রক্তে ভিজে যাক।

‘ওরা তো কারও না কারও সন্তান’—পুলিশের প্রতি আকুতি জানাতে শোনা গেল এক লোককে। ‘এখানে কারও গাড়ি নেই। ওদের তুলুন।’—ওই ব্যক্তি বারবার আকুতি জানিয়ে যাচ্ছিলেন। পরে পুলিশের উপস্থিতিতেই লোকজন সেখানে চলাচলকারী কয়েকটি গাড়িকে থামানোর চেষ্টা করে। কিন্তু কোনো গাড়িই সাহায্যের জন্য থামেনি।

ভিডিওতে আরও দেখা গেছে, আরেকজন লোক পুলিশকে বলছেন, ‘আপনাদের গাড়ি তো ধোয়াও যাবে কিন্তু…’। এরপরও পুলিশের কোনো ভাবান্তর দেখা যায়নি। তিন পুলিশ সদস্যের একজন ওই সময় বলে উঠলেন, ‘গাড়ি ধোয়া হলে সারা রাত আমরা বসব কোথায়।’

একসময় স্থানীয় পুলিশ স্টেশন থেকে আরেকটি গাড়ি আসে। ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গেছে। হাসপাতালে নেওয়ার পর দুই কিশোরকে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এ ব্যাপারে সাহারানপুর পুলিশপ্রধান প্রবাল প্রতাপ সিংহ বলেন, দুর্ঘটনাস্থলে যাওয়া ওই তিন পুলিশ সদস্যের কাণ্ড সম্পর্কে শুনেছি। তাঁরা হাসপাতালে নিতে সহায়তা করতে চাননি বলে অভিযোগ উঠছে। ভিডিওটি দেখে বোঝা যাচ্ছে যে অভিযোগ সত্য। তিনি জানান, ওই তিন পুলিশ সদস্যকে বরখাস্ত করা হয়েছে। এ বিষয়ে তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার মতামত ‍লিখুন

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন...

সংবাদ খুজুন

ফেসবুক গ্রুপ অনুসরন করুনঃ

বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮ – World Cup Football 2018 – SeraNews24.com
Facebook Group · 35,396 members
 

Join Group

 

প্রতিমুহূর্তের সংবাদ পেতে ভিজিট করুন “সেরা নিউজ ২৪ ডটকম”
www.SeraNews24.com

 About Us     Contact     Privacy & Policy     DMCA     Sitemap

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত সেরা নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম -২০১৮