বাংলাদেশ ভবনের দরজা সাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হবে ১ জুলাই – সেরা নিউজ ২৪ ডটকম | SeraNews24.Com | সর্বদা সত্যের সন্ধানে
সংবাদ শিরোনাম :
মাওনা প্রিমিয়ার লীগে ভিক্টরিয়া একাদশকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন ভাইকিংস একাদশ ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটিতে আধুনিক মঞ্চ নাটক প্রদর্শনী তিতুমীরে ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিকে ঘিরে উৎসবমুখর পরিবেশে জীবনবৃত্তান্ত সংগ্রহ চকবাজার অগ্নিকান্ডে রাষ্ট্রীয়ভাবে শোক পালিত কবি সাজেদুল হকের ” মাছরাঙার শহরে, উড়ে যাওয়া পাখির দূরে যাওয়া শূন্যতা “ শ্রীপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আলহাজ্ব আব্দুল জলিলকে নৌকার প্রার্থী হিসেবে চায় শ্রীপুরবাসী কুষ্টিয়া তে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১ কুমারখালী তে বই উৎসব ২০১৯ অনুষ্ঠিত। কুষ্টিয়া -৪ আসনের আওয়ামীলীগের প্রার্থী সেলিম আলতাফ জর্জ বিশাল ব্যবধানে বিজয়ী। নৌকায় ভোট চাইলেন তিতুমীর কলেজ ছাত্রলীগ নেতা হাসানুর রহমান শাওন
বাংলাদেশ ভবনের দরজা সাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হবে ১ জুলাই

বাংলাদেশ ভবনের দরজা সাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হবে ১ জুলাই

শান্তিনিকেতনে নির্মিত বাংলাদেশ ভবনের সবার জন্য আগামী ১ জুলাই খুলে দেওয়া হবে। কলকাতায় নিযুক্ত বাংলাদেশের উপহাইকমিশনার তৌফিক হাসান আজ সোমবার এ কথা জানিয়েছেন।

গত ২৫ মে রবীন্দ্র স্মৃতিবিজড়িত আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশের অর্থে তৈরি হয়েছে এই ভবনটি। এ নির্মাণে খরচ হয়েছে ২৫ কোটি রুপি।
২৫ মে আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশ ভবনের উদ্বোধন হলেও এখনো এই ভবনটি সাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হয়নি। প্রতিদিনই শান্তিনিকেতনে হাজির হন শত শত ভ্রমণকারী এবং পর্যটক। আসেন বাংলাদেশেরও প্রচুর পর্যটক ও ছাত্রছাত্রী। কিন্তু তাঁরা ঢুকতে পারছেন না বাংলাদেশ ভবন দেখার জন্য।
কলকাতায় নিযুক্ত বাংলাদেশের উপহাইকমিশনর তৌফিক হাসান আজ সোমবার সকালে প্রথম আলোকে বলেছেন, ভবনের নির্মাণকাজ শেষ হলেও অভ্যন্তরীণ কিছু সাজসজ্জার কাজ এখনো বাকি। সেটির কাজ চলছে। এই কাজ শেষ হলেই বাংলাদেশ ভবনের দরজা খুলে দেওয়া হবে সর্বসাধারণের জন্য। তিনি এ কথাও বলেছেন, বিশ্বভারতীর উপাচার্য তাঁকে বলেছেন, তাঁরা আশা করছেন, শিগগিরই শেষ হয়ে যাবে সাজসজ্জার কাজ। এরপরেই সম্ভবত ১ জুলাই খুলে দেওয়া হবে বাংলাদেশ ভবনের দরজা।
বিশ্বভারতীর উপাচার্য অধ্যাপক সবুজকলি সেনও আজ সকালে প্রথম আলোকে বলেছেন, গতকাল রোববার এই বাংলাদেশ ভবনের নির্মাণকারী সংস্থা ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের ন্যাশনাল বিল্ডিং কনস্ট্রাকশন করপোরেশন বা এনবিসিসির তরফ থেকে ভবনের দায়িত্ব বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। এখন ভবনের ভেতর জাদুঘর, গ্রন্থাগারসহ অন্যান্য কক্ষের সাজসজ্জার কাজ কিছুটা বাকি। এটি শেষ হলেই এই বাংলাদেশ ভবনটি খুলে দেওয়া হবে সাধারণ মানুষ ও পর্যটকদের জন্য।

পশ্চিমবঙ্গের বীরভূম জেলায় অবস্থান কবিগুরুর স্মৃতিবিজড়িত এই শান্তিনিকেতনের। এখানেই গড়ে উঠেছে কবিগুরুর সাধের বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়। এবার এই বিশ্ববিদ্যালয়ের চত্বরে গড়া হয়েছে বাংলাদেশ ভবন। এ ভবনেই মিলবে বাংলাদেশের জানা অজানা নানা কথা, নানা ছবি, নানা ইতিহাস—সেই বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ, কবিগুরুর বাংলাদেশে অবস্থানের নানা জীবন্ত ছবি। তাই বাংলাদেশ সরকার এই শান্তিনিকেতনে গড়ে তুলেছে বাংলাদেশ ভবন।

বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান প্রকৌশলী অমিত সেনগুপ্ত প্রথম আলোকে বলেছেন, ভবনটি নির্মিত হয়েছে শান্তিনিকেতনের পূর্বপল্লির ইন্দিরা গান্ধী সেন্টার এবং শান্তিনিকেতন দূরদর্শন কেন্দ্রের কাছে। এই ভবন নির্মাণের জন্য ভারত সরকার বাংলাদেশ সরকারের হাতে তুলে দিয়েছিল দুই বিঘা জমি। আর এই জমিতেই বাংলাদেশ সরকার এই ভবন নির্মাণের জন্য দিয়েছিলেন ২৫ কোটি রুপি। এই বাংলাদেশ ভবন নির্মাণ হয়েছে বাংলাদেশ সরকারের দেওয়া বাংলাদেশ ভবনের ডিজাইন অনুযায়ী। ১ লাখ ২০ হাজার বর্গফুট জায়গাজুড়ে নির্মিত হয়েছে এই ভবন। এই ভবনের নির্মাণকাজ শুরু হয় ২০১৬ সালের মার্চ মাস থেকে।
বিশ্ববিদ্যালয়ের এই ভবন নির্মাণের সঙ্গে যুক্ত আরেক প্রকৌশলী কল্লোল দত্ত মণ্ডল প্রথম আলোকে বলেছেন, এই ভবনে রয়েছে ৪৫০ আসনবিশিষ্ট একটি মিলনায়তন। অনুষ্ঠান করার সর্বাধুনিক একটি মঞ্চ। রয়েছে দুটি সেমিনার হল। একটি গ্রন্থাগার, একটি জাদুঘর, একটি গবেষণা ঘর, একটি ফ্যাকাল্টি কক্ষ এবং একটি বড়মাপের ক্যাফেটেরিয়া।
বাংলাদেশ ভবনে ঢোকার মুখে দুদিকের দুই সামনের দেয়ালে থাকছে দুটি ম্যুরাল। একদিকে বাংলাদেশ আর অন্যদিকে ম্যুরালে থাকছে দুই দেশের প্রাকৃতিক দুটি ছবি। প্রবেশদ্বার থেকে ভেতরে ঢোকার পর চোখে পড়বে ছাতামাথায় নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা বিশাল জায়গার একদিকে থাকছে কবিগুরু আর অন্যদিকে থাকছে বঙ্গবন্ধুর দুটি ম্যুরাল। আর এর পেছনেই মিলনায়তন। দুই পাশে একতলা-দোতলাজুড়ে সেমিনার হল, গ্রন্থাগার, জাদুঘর, গবেষণা ঘর, ফ্যাকাল্টি কক্ষ আর ক্যাফেটেরিয়া।

কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জীবনের একটা বড় সময় অতিবাহিত হয়েছে বাংলাদেশে। সেই ১৮৯০ থেকে ১৯০০ সাল পর্যন্ত। কবিগুরুদের বাংলাদেশের শিলাইদহ, পাতিসর আর শাহজাদপুরে ছিল বাড়ি। সেখানে কবিগুরু দীর্ঘদিন অবস্থান করেছেন। এখানে অবস্থানকালে কবিগুরু তাঁদের জমিদারি দেখভালও করতেন। থাকতেন এখানে কবিগুরুর সহধর্মিণীসহ তাঁদের সন্তানেরা। সে সময় কবিগুরু তাঁর সন্তানদের পড়াশোনা করানোর জন্য নিজগৃহেই চালু করেছিলেন পাঠশালা। আর এই বাংলাদেশে অবস্থানকালে কবিগুরু নতুনভাবে আবিষ্কার করেছিলেন দুপুরের সৌন্দর্যকে। কবিগুরু বাংলাদেশে অবস্থানকালে ঘুরতেন নৌকা বা বোটে। ছিল তাঁর দুটি বোট পদ্মা ও চপলা। কবিগুরু এই বোটে চড়ে বহু কবিতা লিখেছেন, গান লিখেছেন। আর সেসব স্মৃতির কথা এবার উঠে আসছে বাংলাদেশ ভবনে। যদিও বিশ্বভারতীর অনুরোধে ইতিমধ্যে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বভারতীর রবীন্দ্র জাদুঘরের জন্য উপহার দিয়েছেন সেই পদ্মা ও চপলা বোটের রেপ্লিকা। এ ছাড়া বাংলাদেশ সরকার জোড়াসাঁকোর রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের সংগ্রহশালার জন্যও দিয়েছে এই বোটের রেপ্লিকা।

তাই কবিগুরুর স্মৃতিবাহী নানা সামগ্রী, স্মারক নিয়ে এবার বাংলাদেশ ভবনের জাদুঘর সাজানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। শুধু তা-ই নয়, বাংলাদেশ নিয়ে যাঁরা এখানে গবেষণা করতে চান, তাঁদের জন্যও সমৃদ্ধ করা হচ্ছে বাংলাদেশ ভবনের গ্রন্থাগারকে। এখানে মিলবে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ, মুক্তিযুদ্ধে ভারতের অবদান, বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস, নানা ছবিসহ কবিগুরুর জীবনের নানা কথা, বিশেষ করে বাংলাদেশ অবস্থানের নানা স্মৃতিবাহী ছবি, পাণ্ডুলিপি, স্মারক সহ আরও অনেক কিছু।

এই বাংলাদেশ ভবন নির্মাণ করছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের ন্যাশনাল বিল্ডিং কনস্ট্রাকশন করপোরেশন বা এনবিসিসি। এনবিসিসি গতকাল রোববার এই ভবনটি হস্তান্তর করেছে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষের হাতে।

গত ২০১১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের বাংলাদেশ সফরকালে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠকের পর শান্তিনিকেতনে বাংলাদেশ ভবন নির্মাণের প্রস্তাব গৃহীত হয়। তখনই ঠিক হয়, বাংলাদেশ ভবনে থাকবে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধসংক্রান্ত নানা ইতিহাস, গ্রন্থাগার, মিলনায়তন, বাংলাদেশ সম্পর্কে গবেষণার নানা তথ্য, চিত্রশালাসহ বাংলাদেশের ইতিহাস ও ঐতিহ্যের নানা স্মারক। থাকবে রবীন্দ্রনাথের বাংলাদেশ অবস্থানের নানা তথ্য, ইতিহাস, স্মারক ও চিত্রাবলি।

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার মতামত ‍লিখুন

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন...

সংবাদ খুজুন

ফেসবুক গ্রুপ অনুসরন করুনঃ

বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮ – World Cup Football 2018 – SeraNews24.com
Facebook Group · 35,396 members
 

Join Group

 

প্রতিমুহূর্তের সংবাদ পেতে ভিজিট করুন “সেরা নিউজ ২৪ ডটকম”
www.SeraNews24.com

 About Us     Contact     Privacy & Policy     DMCA     Sitemap

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত সেরা নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম -২০১৮