নির্বাচন থেকে দূরে রাখতে খালেদাকে জেলে ঢুকানো হয়েছে: সিলেটে মোশাররফ | | সেরা নিউজ ২৪ ডটকম | SeraNews24.Com | সর্বদা সত্যের সন্ধানে
বিজ্ঞপ্তিঃ

দেশের জনপ্রিয় জাতীয় অনলাইন দৈনিক “সেরা নিউজ ২৪ ডটকম” এর সংবাদ সংগ্রহ করার জন্য জেলা-উপজেলা পর্যায়ে কর্মঠ, সৎ, সাহসী পুরুষ ও মহিলা সংবাদদাতা/প্রতিনিধি/বিশেষ প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে।

সংবাদ শিরোনাম :
কন্যাসন্তানের বাবা হচ্ছেন সাকিব, ছেলে হলো মাহমুদউল্লাহর হিজড়ারা মানুষ, তাঁদেরও ক্ষুধা আছে ভিডিও কনফারেন্সে লক্ষ্মীপুরের মানুষকে লক্ষ্মী হয়ে ভালো থাকার জন্য বলেন প্রধানমন্ত্রী লালমনিরহাট জেলা পাটগ্রাম থানায় নিজ বেতনের টাকা দিয়ে দুস্থদের খাদ্যসামগ্রী দিলেন ইউএনও মশিউর রহমান “টঙ্গীবাড়িতে আ’লীগ উপদেষ্টার খাদ্য সামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণ” করোনায় আক্রান্ত ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন আইসিইউতে বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ হাসপাতালে ভর্তি না নেওয়ায় গাড়িতে সন্তান প্রসব ফেসবুকের ‘করোনা ম্যাপ’ যে কাজে লাগবে করোনায় আক্রান্ত সেই বার্সা তারকা এখন আশঙ্কামুক্ত
নির্বাচন থেকে দূরে রাখতে খালেদাকে জেলে ঢুকানো হয়েছে: সিলেটে মোশাররফ

নির্বাচন থেকে দূরে রাখতে খালেদাকে জেলে ঢুকানো হয়েছে: সিলেটে মোশাররফ

রেজওয়ান আহমদ:বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, ‘একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন থেকে দূরে রাখতেই খালেদা জিয়াকে জেলে বন্দি করা হয়েছে। সরকার ৫ জানুয়ারির মতো আরেকটি নির্বাচনের স্বপ্ন দেখছে। গেল ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে জনগণকে ভোটাধিকার থেকে বঞ্চিত করা হয়েছিল। এবার যদি বিএনপি নির্বাচনে যায় তাহলে সরকারের একদলীয় নির্বাচনের উদ্দেশ্য সফল হবে না। তাই বিএনপিকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখতে খালেদা জিয়াকে জেলে ঢুকানো হয়েছে।’

মঙ্গলবার বিকেলে সিলেটের রেজিস্টারি মাঠে বিএনপির সিলেট বিভাগীয় সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। দলীয় চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে এই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

আগামী সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের দাবি জানিয়ে খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‌‘সরকার জনগণকে ভয় পায়। তাই রাষ্ট্রের তিনটি স্তম্ভ আইন, বিচার ও নির্বাহী বিভাগকে ধ্বংস করে দিয়েছে। এই সরকারকে ইতোমধ্যে স্বৈরাচারী সরকার হিসেবে অভিহিত করেছে আন্তর্জাতিক গোষ্ঠি।’

তিনি বলেন, ‘ইতিহাস বলে, স্বৈরাচার বেশিদিন টিকে থাকতে পারে না। একসময় স্বৈরাচারের পতন হয়। এই সরকারেরও পতন হবে।’

‘চলমান কোটা সংস্কার আন্দোলকে যৌক্তিক’ মন্তব্য করে খন্দকার মোশাররফ বলেন, ‘এই আন্দোলনে সরকার পুলিশ লেলিয়ে দিয়েছে। বিএনপির ভিশন ২০২০-৩০ কে মুক্তিযোদ্ধা ও নৃতাত্ত্বিকদের কোটা ছাড়া অন্য কোটাগুলো বাদ দেওয়া হয়েছে।

নিজের বক্তব্যে বিএনপির সাবেক কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও সিলেট জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ‘নিখোঁজ’ এম. ইলিয়াস আলীর কথাও স্মরণ করেন খন্দকার মোশাররফ।

সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান বলেন, ‘পুলিশ-র‌্যাবকে ব্যারাকে রেখে রাজপথে লড়াইয়ে আসুন। তাহলেই বোঝা যাবে কার শক্তি বেশি, জনগণ কার সঙ্গে আছে।’

তিনি বলেন, ‘আজকের পার্লামেন্ট জনপ্রতিনিধিত্ববিহীন। এই সরকারের কোনো ভিত্তি নেই। তাই তারা ক্ষমতাকে কুক্ষিগত করতে বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় গ্রেফতার করে সাজা দিয়েছে। সরকার ক্ষমতাকে দীর্ঘস্থায়ী করতে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষ-বিপক্ষের কথা বলে বিভক্তি সৃষ্টি করছে।’

সমাবশ বিএনপির স্থায়ী কমিটির অপর সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘আমাদের সমাবেশের অনুমতি দিচ্ছে না সরকার। গণতন্ত্রের সমাবেশে অনুমতি প্রয়োজন নেই। সংবিধান এই অধিকার একটা নাগরিককে দিয়েছে। কিন্তু আমরা রাজনৈতিক দল হিসেবে সে অধিকারটুকু পাচ্ছি না।’

আওয়ামী লীগের প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, ‘১৭ বছর আগে এই দলটি দুর্নীতির সার্টিফিকেট পেয়েছিল। এবার তারা স্বৈরচারী হিসেবে বিশ্বে স্বীকৃতি পেয়েছে। জনগণের ওপর তাদের কোনো ভরসা নেই। তাদের ভরসা অন্য জায়গায়। কিছু পুলিশের ওপর আর নির্বাহী বিভাগের ওপর। আজ তারা সকল প্রতিষ্ঠানকে ধ্বংস করে দিয়েছে, ব্যাংক লুট করেছে, শেয়ার বাজার লুট করেছে। দেশের সমস্ত সম্পদ লুট করে বিদেশ পাচারের ব্যবস্থা করেছে।’

সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির উদ্যোগে আয়োজিত এই সমাবেশে দুপুর থেকেই মিছিল নিয়ে জড়ো হতে থাকেন নেতাকর্মীরা। সমাবেশে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইনের সভাপতিত্বে এবং জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ ও মহানগর বিএনপির সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিমের সঞ্চালনায় বিকাল ৩টায় এ সমাবেশ শুরু হয়। সমাবেশে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর যোগ দেওয়ার কথা থাকলেও মায়ের অসুস্থতার কারণে তিনি আসতে পারেননি বলে জানানো হয়।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মীর্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ভাইস চেয়ারম্যান শাহজাহান খান, বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ইনাম আহমদ চৌধুরী, ড. এনামুল হক চৌধুরী, খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির, বিএনপির উপদেষ্ঠামন্ডলীর সদস্য জয়নাল আবেদীন ফারুক, প্রচার সম্পাদক শহিদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, সাংগঠনিক সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন জীবন, স্বেচ্ছাবিষয়ক সম্পাদক মীর শরাফত আলী সফু, সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ও হবিগঞ্জের মেয়র জি কে গৌছ, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক দিলদার হোসেন সেলিম, কলিম উদ্দিন মিলন, শফিকুল ইসলাম বাবুল, সহ-ক্ষুদ্রউণ বিষয়ক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, শাম্মী আখতার, সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আবুল কাহের শামীম, সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, মৌলভীবাজার জেলা বিএনপির সভাপতি নাসের রহমান, কেন্দ্রীয় সদস্য শফি আহমদ চৌধুরী, মহানগর বিএনপির সাবেক সভাপতি ডা. শাহরিয়ার আহমদ চৌধুরী, মিজানুর রহমান মিজান, হাদিয়া চৌধুরী মুন্নি, চিত্রনায়ক হেলাল খান, জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি এডভোকেট নুরুল হক প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার মতামত ‍লিখুন

মন্তব্য

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন...

সংবাদ খুজুন

ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিনঃ

 
সেরা নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম – SeraNews24.Com ☑️
পাবলিক গোষ্ঠী · 23,009 জন সদস্য

গোষ্ঠীতে যোগ দিন

প্রতিমুহূর্তের সংবাদ পেতে Like দিন অফিশিয়াল পেইজ এ।
নিউজ পোর্টাল: www.SeraNews24.Com
ফেসবুক গ্রুপ: http://bit.do/SN24FBGroup
ইউটিউব চ্যানেল: http://bi…
 

 About Us     Contact     Privacy & Policy     DMCA     Sitemap

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | সেরা নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম ২০১৮

Design & Developed By Digital Computer Center
error: Content is protected !!