কুড়িগ্রামে ব্রম্মপুত্র নদের করাল গ্রাসে তিন ইউনিয়ন | | সেরা নিউজ ২৪ ডটকম | SeraNews24.Com | সর্বদা সত্যের সন্ধানে
বিজ্ঞপ্তিঃ

দেশের জনপ্রিয় জাতীয় অনলাইন দৈনিক “সেরা নিউজ ২৪ ডটকম” এর সংবাদ সংগ্রহ করার জন্য জেলা-উপজেলা পর্যায়ে কর্মঠ, সৎ, সাহসী পুরুষ ও মহিলা সংবাদদাতা/প্রতিনিধি/বিশেষ প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগাযোগঃ 01727747903 ইমেইলঃ [email protected]

কুড়িগ্রামে ব্রম্মপুত্র নদের করাল গ্রাসে তিন ইউনিয়ন

কুড়িগ্রামে ব্রম্মপুত্র নদের করাল গ্রাসে তিন ইউনিয়ন

তানভীর হোসাইন রাজু,কুড়িগ্রামঃ
কুড়িগ্রামের রৌমারি উপজেলার ২০টি গ্রাম রাক্ষসী ব্রম্মপুত্র নদের ভাঙ্গনের কবলে পড়েছে।যে হারে ভাঙ্গন শুরু হয়েছে তা চলতে থাকলে ১৯৭১সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের মুক্ত ল রৌমারি এক সময় বিলিন হয়ে যাবে।বন্যা আসার আগেই রৌমারি উপজেলার বন্দবেড়,চরশৌলমারি ও যাদুচর ইউনিয়নের ২০টি গ্রামে ব্রম্মপুত্র নদের পানি বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে ব্যাপক ভাঙ্গন শুরু হয়েছে।ভাঙ্গন কবলিত এলাকা গুলো হলো নদীর পূর্ব বামতীরে অবস্হিত ইটালুকান্দা,সাহেবের আলগা,চর গেন্দার আলগা,চরঘঘুমারি,খেরুয়ারচর,ঘুঘুমারি,পূর্বখেরুয়ারচর,পূর্বখেদাইমারি,উত্তর খেদাইমারি,পাখিউড়া,পশ্চিম পাখিউড়া,দক্ষিন পাখিউড়া,বাইসপাড়া,বাগুয়ারচর,পূর্বপাড়া,দক্ষিন বলদমারা,ধনারচর,তিনতেলী,পশ্চিম ধনাচড়,দিগলাপাড়া,ধনারচর নতুন গ্রাম।এসব এসব এলাকার মানুষজন প্রতিনিয়ত আতঙ্কে জীবন যাপন করতেছে। কর্তৃপক্ষের নেই জোড়ালো পদক্ষেপ। এছাড়াও আসছে বন্যায় ভাঙ্গনের কবলে পড়ার আসঙ্কায় রয়েছে আরও ২২টি গ্রাম। এতে বিলিন হয়ে যেতে পাড়ে মসজিদ,মন্দির,পাকা রাস্তা,ব্রিজ,কালপাট,অসংখ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।ব্রম্মপুত্র নদের ভাঙ্গ রোদে জোড়ালো কোন ব্যাবস্হা গ্রহন না করলে অদুর ভবিষৎতে রৌমারি উপজেলা পরিষদসহ সরকারের কয়েক হাজার কুটি টাকার সম্পদ নদী গর্ভে বিলিন হয়ে যাবে।খেদাইমারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু বক্কর সিদ্দিক জানান,বিগত ১১বছরে খেদাইমারি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ৪বার ভেঙ্গে যায়। এখন বাগুয়ারচর গ্রামে অস্হায়ি জায়গায় পাঠদান করাচ্ছি।রৌমারি নদী ভাঙ্গন আনন্দোলন প্রতিরোধ কমিটির সাধারন সম্পাদক হানিফ জানান,গত দশ বছরে রৌমারি,রাজিবপুর,চিলমারীর প্রায় ৬৮হাজার পরিবার সর্বনাশা ব্রম্মপুত্র নদের ভাঙ্গনের কবলে নিঃশ্ব হয়ে ঢাকা শহরে ও বাংলাদেশের অন্যান্য জেলায় পারি জমিয়েছে। কথা হয় রৌমারি উপজেলা নির্বাহী অফিসার দীপঙ্কর রায় ও রৌমারি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মজিবর রহমান বঙ্গবাসির সঙ্গে। তারা বলেন, বন্যা আসার আগেই চরশৌলমারি,বন্দবেড়,যাদুরচর ইউনিয়নে ব্যাপক হারে নদী ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। ভাঙ্গন প্রতিরোধে দ্রুত ড্রেজিং ব্যাবস্হা না করলে অদুর ভবিষৎতে মহান মুক্তিযুদ্ধের মুক্ত ল হিসাবে পরিচিত রৌমারি উপজেলা মানচিত্র থেকে মুছে যাবে।

Print Friendly, PDF & Email

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন...

সংবাদ খুজুন

ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিনঃ

 
সেরা নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম – SeraNews24.Com ☑️
পাবলিক গোষ্ঠী · 23,009 জন সদস্য

গোষ্ঠীতে যোগ দিন

প্রতিমুহূর্তের সংবাদ পেতে Like দিন অফিশিয়াল পেইজ এ।
নিউজ পোর্টাল: www.SeraNews24.Com
ফেসবুক গ্রুপ: http://bit.do/SN24FBGroup
ইউটিউব চ্যানেল: http://bi…
 

 About Us     Contact     Privacy & Policy     DMCA     Sitemap

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | সেরা নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম ২০১৮

Design & Developed By Digital Computer Center
error: Content is protected !!